(CLICK ON CAPTION/LINK/POSTING BELOW TO ENLARGE & READ)

Thursday, April 11, 2013

PRAKASH KARAT COMPLAINS TO THE PRESIDENT AGAINST WEST BENGAL GOVERNOR


হিংসার অভিযানকে মদত দিয়েছে রাজ্যপালের বিবৃতি রাষ্ট্রপতিকে জানালেন প্রকাশ কারাত|

নিজস্ব প্রতিনিধি, গণশক্তি

নয়াদিল্লি, ১১ই এপ্রিল- পশ্চিমবঙ্গে সি পি আই (এম) এবং বামপন্থীদের বিরুদ্ধে যে ব্যাপক আক্রমণ চলছে, রাজ্যপালের বিবৃতি তাকে মদত দিয়েছেরাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি লিখে এই অভিযোগ করেছেন সি পি আই (এম)-র সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ কারাতবুধবারই রাজ্যপাল এম কে নারায়ণন এক বিবৃতিতে দিল্লির যোজনা ভবনের সামনে বিক্ষোভ ও মন্ত্রীদের হেনস্তা হওয়ার ঘটনাকে সমালোচনা করতে গিয়ে ওই আক্রমণকে পূর্ব পরিকল্পিতএবং ওই ঘটনার জন্য সি পি আই (এম) পলিট ব্যুরোর ক্ষমা চাইতে হবে বলে মন্তব্য করেছিলেনকারাত বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জিকে লেখা চিঠিতে রাজ্যপালের রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের পরিধি নিয়ে গুরুতর প্রশ্ন তুলেছেন

কারাত লিখেছেন, ৯ই এপ্রিল পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী যোজনা কমিশনে গিয়েছিলেনতখন কলকাতায় সুদীপ্ত গুপ্তের পুলিসী হেফাজতে মৃত্যুর প্রশ্নে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মনোভাবের প্রতিবাদ জানাতে সি পি আই (এম) এবং বেশ কয়েকটি সংগঠন বিক্ষোভ দেখায়পুলিসের উপস্থিতিতে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চলাকালীনই অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রকে ঘিরে অবাঞ্ছিত ঘটনা ঘটেএই ঘটনা ঘটামাত্র সি পি আই (এম) এবং ওই বিক্ষোভের সংগঠকরা ওই আচরণের নিন্দা করেছে, ওই আচরণ সমর্থনযোগ্য নয় বলে জানিয়ে দিয়েছেপার্টির পলিট ব্যুরো ঘোষণা করেছে কীভাবে ওই ঘটনা ঘটলো, তা খতিয়ে দেখা হবে

কারাত চিঠিতে লিখেছেন, কিন্তু দুঃখজনক ভাবে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল এমন এক বিবৃতি দিলেন যা অবাঞ্ছিত, রাজ্যপালের পদের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়রাজ্যপাল ঘটনার নিন্দা করছেন, তা প্রণিধানযোগ্যকিন্তু তিনি তার চেয়ে অনেক বেশি দূর গিয়ে বলেছেন, ‘ মুখ্যমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী ও রাজ্যের অন্যান্য বরিষ্ঠ মন্ত্রীদের ওপরে ওই আক্রমণ পূর্ব পরিকল্পিতআরো বলেছেন, ‘এই ধরনের আক্রমণ ভারতের আধুনিক ইতিহাসে নজিরবিহীনরাজ্যপাল ঘোষণা করেছেন, ‘এই আক্রমণের জন্য যারা দায়ী এবং তাদের মদতদাতারা গণতান্ত্রিক কাঠামোর মধ্যে কাজ করার অধিকার হারিয়েছেনসি পি আই (এম) পলিট ব্যুরোর কাছ থেকে তিনি প্রকাশ্যে ক্ষমাপ্রার্থনাওদাবি করেছেন

কারাত প্রশ্ন তুলেছেন, কলকাতার রাজভবনে বসে নারায়ণন কীভাবে এই সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ধারণায় পৌঁছোলেন যে মুখ্যমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং অন্যদের ওপরে পূর্ব পরিকল্পিত আক্রমণ করা হয়েছিল? বস্তুত সমস্ত দৃশ্য-শ্রাব্য মাধ্যমেই দেখা গেছে মুখ্যমন্ত্রী কোনো বাধা ছাড়াই যোজনা ভবনে ঢুকেছেনরাজ্যপালের মতো এক সাংবিধানিক পদে বসে থাকা কোনো ব্যক্তির পক্ষে একথাও বলা খুবই অসমীচিন যে একটি রাজনৈতিক দল গণতান্ত্রিক কাঠামোয় কাজ করার অধিকারই হারিয়েছে

কারাত লিখেছেন, পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে সি পি আই (এম), বামপন্থী দলগুলির অফিস, নেতা ও কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক আক্রমণ সংগঠিত হচ্ছেরাজ্যপালের বিবৃতি এই আক্রমণকারীদেরই উৎসাহিত করেছেরাষ্ট্রপতি হিসেবে আপনি বিচার করুন রাজ্যপালের পক্ষে এই ধরনের রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ ন্যায়সঙ্গত কিনাযেহেতু রাজ্যপাল রাষ্ট্রপতির প্রতিনিধি, আপনি নিশ্চয়ই তাঁর বিবৃতি পড়বেন এবং সেইমতো উপদেশ দেবেন

এদিন নয়াদিল্লিত সি পি আই (এম) পলিট ব্যুরোর সদস্য সীতারাম ইয়েচুরি সাংবাদিকদের বলেন, রাজ্যপালের মন্তব্য অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানহীনতিনি একজন পুলিস অফিসার ছিলেনকোন তথ্যের ভিত্তিতে তিনি যোজনা ভবনের ঘটনাকে পূর্ব পরিকল্পিত বলছেন তা জনসমক্ষে জানানসি পি আই (এম) সঙ্গে সঙ্গে ঘটনার নিন্দা করেছেকোনো রাজ্যপালের পরামর্শ দরকার পড়েনিরাজ্যপালের মন্তব্য পশ্চিমবঙ্গে হিংসার অভিযানকে মদত দিয়েছেতাঁর এমন মন্তব্যের পরেই প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে আক্রমণ হয়েছে

ইয়েচুরি বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গে হিংসা ও সন্ত্রাসের ভিত্তিতে সরকার চলছেরাজ্যপাল এ বিষয়ে তাঁর অবস্থান স্থির করুন

এদিকে কলকাতায় রাজ্যপাল এম কে নারায়ণন বৃহস্পতিবার দাবি করেছেন তিনি মার্কসবাদ সম্পর্কে বিপুল জ্ঞানের অধিকারীরাজ্যপালের আগের বিবৃতির পরিপ্রেক্ষিতে সি পি আই (এম) নেতা বিমান বসু যে মন্তব্য করেছিলেন তার জবাবে নারায়ণন বলেছেন, ছয় দশকের বেশি সময় ধরে তিনি কমিউনিজমের ছাত্রমার্কস, এঙ্গেলস এবং মাওয়ের রচনা তিনি আত্মস্থ করেছেনবিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সম্মেলনে তিনি কমিউনিজম নিয়ে প্রচুর বক্তৃতা দিয়েছেনসুতরাং সি পি আই (এম)-র পলিট ব্যুরো ও কেন্দ্রীয় কমিটির ভূমিকা ও কাজ সম্পর্কে তিনি ভালোভাবেই অবহিতকমিউনিস্ট মতাদর্শের অন্যতম ধারণা হলো গণতান্ত্রিক কেন্দ্রিকতাএই কারণেই সি পি আই (এম)-র নিচুতলার কর্মীদের আচরণের জন্য পলিট ব্যুরোকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছিলএই বিচিত্র যুক্তি দিলেও রাজ্যপাল তাঁর পূর্ব পরিকল্পিতআক্রমণের তত্ত্বের সপক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ দেননিতাঁর মন্তব্যের পরে যে রাজ্যজুড়ে আক্রমণ আরো বেড়েছে, তার জন্য কাউকে ক্ষমাচাইতে হবে কিনা, সে-কথাও রাজ্যপাল জানাননি

No comments:

Post a Comment